LOGo  


২৪ ঘন্টা আপনার পাশে, আপনার সাথে ডেইলি নারায়ণগঞ্জ ২৪ ডটকম

dailynarayanganj24@gmail.com

 

 

মাশরাফি বনাম মুশফিক

ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকমঃএকজনের একটি ইনিংস কিভাবে টি-টোয়েন্টি ম্যাচের ভাগ্য গড়ে দিতে পারে, তার উদাহরণ হিসেবেই এলেন মুশফিকুর রহিম। উদাহরণটি দিলেন মাশরাফি বিন মর্তুজা, ‘এই ফরম্যাটের ক্রিকেটে এক-দুজন ক্রিকেটারই ম্যাচ বদলে দিতে পারে। নিদাহাস ট্রফির কথাই চিন্তা করেন। মুশফিক একা একটি ম্যাচ জিতিয়েছে।’

গত ১০ মার্চ কলম্বোর প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে মুশফিকের ৩৫ বলে ৫ বাউন্ডারি ও ৪ ছক্কায় সাজানো অপরাজিত ৭২ রানের ইনিংসে বাংলাদেশ স্বাগতিক শ্রীলঙ্কাকে হারায়ইনি শুধু, টি-টোয়েন্টিতে নিজেদের ইতিহাসে সর্বোচ্চ রান (২১৪) তাড়া করে জেতার রেকর্ডও গড়েছিল। এই ফরম্যাটের জন্য উপযোগী ব্যাটিং বোঝাতেই মাশরাফি টানলেন মুশফিককে। তবে মুশফিক আজও সেরকমই একটি ইনিংস খেলুন, মাশরাফি নিশ্চিতভাবেই তা চাইবেন না।

আজকের লড়াইয়ের শিরোনাম যে ‘মাশরাফি বনাম মুশফিক’। মাশরাফির দল বর্তমান চ্যাম্পিয়ন রংপুর রাইডার্স তো আজ বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) ষষ্ঠ আসরের উদ্বোধনী ম্যাচে মুখোমুখি হচ্ছে মুশফিকের দল চিটাগং ভাইকিংসের। শিরোপা ধরে রাখার অভিযান অবশ্যই জয় দিয়ে শুরু করতে চাইবে শিরোপাধারীরা। মুশফিকের মতো কেউ ম্যাচভাগ্য গড়ে দেওয়া ব্যাটিং করে ফেললে এ ক্ষেত্রে বিপদ। উদাহরণ হতে জানা মুশফিককে দ্রুত ফেরানোর ছক কষেই তাই আজ নামার কথা রংপুর রাইডার্সের।

বরাবরই ভালো করার প্রতিজ্ঞা নিয়ে শুরু করা চিটাগং ভাইকিংস শেষ পর্যন্ত পয়েন্ট টেবিলের তলানিতেই চলে যায়। অবশ্য এবার মুশফিকের নেতৃত্বে অন্য রকম একটি আসর কাটানোর আশাও আছে এ ফ্র্যাঞ্চাইজির। সে জন্য শুরুটা ভালো হলে তো ভালোই। তাই ভাইকিংদেরও জয় দিয়ে শুরুর আশা অস্বাভাবিক নয়। তাদের অধিনায়কও বললেন সে কথাই, ‘এটি যেহেতু প্রথম ম্যাচ, সবাই চাইবে ভালোভাবে শুরু করতে। আমরাও তা-ই চাই। এবং আমরা যাদের সঙ্গে খেলব, তারা বর্তমান চ্যাম্পিয়ন। তবে এবার কিন্তু সবাই নতুন করেই শুরু করবে। কাগজে-কলমে আমাদের দলটি অত শক্তিশালী নয়। এর পরও আমাদের কয়েকজন কার্যকর টি-টোয়েন্টি খেলোয়াড় আছে। যাদের নিয়ে আমরা খুব ভালো একটি ম্যাচ দিয়ে আসর শুরু করতে পারব বলে আত্মবিশ্বাসী আছি। শুরুটা গুরুত্বপূর্ণ। এটিতেই আপাতত মনোযোগ দিচ্ছি আমরা। এখন মাঠে পরিকল্পনা প্রয়োগ করাটাই জরুরি।’

পরিকল্পনার প্রয়োগ ঠিকঠাক করে একটি দল জিতবে। কিন্তু টি-টোয়েন্টি এমন ফরম্যাট, যেখানে শুরুর দিকে টানা হারা দলও হঠাৎ করে পারফরম্যান্সের তুঙ্গে পৌঁছাতে পারে। এমনকি জিতে যেতে পারে শিরোপাও। এই মুহূর্তে রংপুর রাইডার্সের চেয়ে ভালো আর সে রকম কোনো উদাহরণ নেই। মাশরাফিকেও তাই অবধারিতভাবেই উল্লেখ করতে হলো সেটি, ‘ভালো দল গড়লেই যে আপনি চ্যাম্পিয়ন হবেন, এই ফরম্যাটে তারও কোনো নিশ্চয়তা নেই। কাজেই কাল (আজ) থেকে আমাদের খুব ভালোভাবে শুরু করতে হবে। আবার খারাপও করতে পারি। কিন্তু নিশ্চিত করতে হবে যেন ঘুরে দাঁড়াতে পারি। যেমনটি আগের আসরে হয়েছিল। প্রথমে আমরা শুধুই হারছিলাম। কিন্তু পরে ঘুরে দাঁড়িয়েছি। সুতরাং ঘুরে দাঁড়ানোর মানসিকতা থাকতে হবে।’

একই সঙ্গে অন্য আরেকটি বিষয়ও খুব গুরুত্ব পাচ্ছে রংপুর রাইডার্সের অধিনায়কের কাছে। সেটি নিজেদের মধ্যে বন্ধন সুদৃঢ় করার, ‘আসলে শিরোপা জেতার নির্দিষ্ট কোনো রেসিপি নেই। তবে এখানে যেহেতু অনেক জায়গার খেলোয়াড় খেলতে আসে, তাই নিজেদের মধ্যে বন্ধনটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। এই ধরুন একসঙ্গে থাকা, সময় কাটানো এবং উপভোগ করা।’ বন্ধন জোরালো হলে রংপুরের শিরোপা ধরে রাখার সম্ভাবনাও জোরালো হবে আরো। কারণ অধিনায়ক যে মনে করেন ঢাকা ডায়নামাইটসকে হারিয়ে গতবার শিরোপা জেতা দলটির চেয়েও শক্তিশালী এবারের রংপুর। মনে হওয়ারই কথা। গতবার শিরোপা জয়ের নায়ক ক্রিস গেইলের সঙ্গে যে এবার যোগ দিয়েছেন এবি ডি ভিলিয়ার্স এবং অ্যালেক্স হেলসরাও। মাশরাফির ভাষায়, ‘এবার আমাদের দলটি ভালো ও ভারসাম্যপূর্ণ। বোলিংটা একটু ঠিক রাখতে হবে। এখনো সব খেলোয়াড় আসেনি। গতবারের চেয়ে এবারের দল আরো ভালো বলেই মনে হয় আমার কাছে।’

সেই দল নিয়ে আবার আত্মতুষ্টির জোয়ারে ভেসে না যাওয়ার সতর্কতাও আছে তাঁর, ‘খেলার জন্য আত্মবিশ্বাস তো থাকতেই হবে। তবে অতি আত্মবিশ্বাসী হওয়ার প্রশ্নই আসে না। নতুন টুর্নামেন্ট শুরু হচ্ছে, নতুন চ্যালেঞ্জ সামনে। আত্মবিশ্বাস তাই থাকতে হবে, অতি আত্মবিশ্বাস অবশ্যই না।’

সংবাদ শিরোনাম