LOGo  


২৪ ঘন্টা আপনার পাশে, আপনার সাথে ডেইলি নারায়ণগঞ্জ ২৪ ডটকম

dailynarayanganj24@gmail.com

 

 

হ্যাটট্রিকসহ ৫ উইকেটে রাজ্জাকের পাশে এনামুল

ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকম:প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে আরো একবার আবদুর রাজ্জাককে ধরে ফেললেন এনামুল হক জুনিয়র। বাংলাদেশের বোলারদের মধ্যে রাজ্জাকের সঙ্গে যৌথভাবে সর্বাধিক ৩৪তম বার পাঁচ উইকেটের রেকর্ড গড়েন এই বাঁহাতি স্পিনার। জাতীয় ক্রিকেট লীগের (এনসিএল) শেষ রাউন্ডের দ্বিতীয় দিনে হ্যাটট্রিক করেন বরিশাল বিভাগের স্পিনার মনির হোসেন।

আর গতকাল তৃতীয় দিনে বল হাতে আরেকটি হ্যাটট্রিক উদযাপন করেন ঢাকা বিভাগের এনামুল হক জুনিয়র। এনামুলের মতো মনিরও হ্যাটট্রিকসহ পাঁচ উইকেটের নৈপুণ্য দেখান। কক্সবাজার স্টেডিয়ামের একাডেমি মাঠে দ্বিতীয় স্তরের ম্যাচে ঢাকাকে টার্গেট দেয়া থেকে ৬ রান দূরে সিলেট বিভাগ। দ্বিতীয় ইনিংসে তাদের সংগ্রহ দাঁড়ায় ১০২/৪। প্রথম ইনিংসে সিলেটের ২৩৮ রানের জবাবে ৩৪৬ রানের পুঁজিতে ১০৮ রানের লিড পায় ঢাকা।
সিলেট অধিনায়ক রাজিন সালেহর এটি বিদায়ী ম্যাচ। প্রথম ইনিংসে ৬৭ রান করেন এই অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান। দ্বিতীয় ইনিংসে ৪০ রানে অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়েন তিনি। ২৩৬/৪ সংগ্রহ নিয়ে তৃতীয় দিন শুরু করে ঢাকা।

দিনের প্রথম ওভারেই হ্যাটট্রিক পূরণ করেন এনামুল। ইনিংসের ৭৭তম ওভারের শেষ তিন বলে সাজঘরে পাঠান তাইবুর রহমান (১৫), আবদুল মজিদ (১০৪) ও নাজমুল হোসেন মিলনকে (০)। আগেরদিন রিটায়ার্ড হার্ট হয়ে মাঠ ছাড়া মজিদ এক রানও যোগ করতে পারেননি। আর দ্বিতীয় দিনে সাইফ হাসান (৯) ও শুভাগত হোমকে (৩০) ফিরিয়ে নিজের প্রথম দুই উইকেট নেন এনামুল। মোশাররফ হোসেন রুবেলের (৫০) ফিফটিতে দলীয় সংগ্রহ তিনশ’ পার করে ঢাকা। ৩৩ ওভারে ৮৭ রানের বিনিময়ে পাঁচ উইকেট নেন এনামুল।
কক্সবাজার স্টেডিয়ামে দ্বিতীয় স্তরের আরেক ম্যাচে চট্টগ্রাম বিভাগের বিপক্ষে ৭৯ রানের লিড নেয় ঢাকা মেট্রো। দ্বিতীয় ইনিংসে তাদের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৯৬/৩। শামসুর রহমান ৩৭ ও মোহাম্মদ আশরাফুল ৭ রানে অপরাজিত থাকেন। প্রথম ইনিংসে মেট্রোর ৩২৮ রানের জবাবে ৩৪৫ রান করে চট্টগ্রাম। দুই দলের হয়ে সেঞ্চুরি করেন যথাক্রমে মার্শাল আইয়ুব ও সাদিকুর রহমান। গতকাল নিজেদের প্রথম ইনিংসে ১৯৬/৩ সংগ্রহ নিয়ে ব্যাটিংয়ে নামে চট্টগ্রাম। এক রান যোগ করে আউট হন সাদিকুর (১০১)। অর্ধশতক করেন অধিনায়ক ইয়াসির আলী (৬৪)। ৪৩ রানে অপরাজিত থাকেন বল হাতে চার উইকেট নেয়া নাঈম হাসান। মেট্রোর হয়ে আবু হায়দার রনি ৪টি, কাজী অনিক নেন ৩টি ও দুই উইকেট পান আশরাফুল।

রাজ্জাকের চার উইকেট, সৌম্য ও সোহানের ফিফটি
বগুড়ায় প্রথম স্তরের ম্যাচে সৌম্য সরকার ও নুরুল হাসান সোহানের ফিফটিতে রংপুর বিভাগের বিপক্ষে ২০৪ রানের লিড নেয় খুলনা বিভাগ। দ্বিতীয় ইনিংসে বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের সংগ্রহ দাঁড়ায় ১৯২/৬। জিয়াউর রহমান ১৭ ও প্রথম ইনিংস ফিফটি করা মঈনুল ইসলাম ৬ রানে অপরাজিত থাকেন। সেঞ্চুরি মিস করেন সৌম্য (৮৩)। ব্যক্তিগত ৫২ রানে আউট হন উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান সোহান। মাঠ ভেজা থাকা ও আবহাওয়াজনিত কারণে প্রথম দুইদিনে খেলা শুরু হতে বিলম্ব হয়। আর দুই উইকেট হাতে রেখে লিড না নিয়েও প্রথম ইনিংস ঘোষণা করে রংপুর। খুলনার ২৬১ রানের জবাবে ৮ উইকেটে ২৪৯ রান করে তারা। ১২৬/৩ সংগ্রহ নিয়ে তৃতীয় দিন শুরু করে রংপুর। অর্ধশতক করে অপরাজিত থাকেন ধীমান ঘোষ (৫০*)। ২১ ওভারে ৬২ রান খরচায় ৪ উইকেট নেন খুলনা অধিনায়ক আবদুর রাজ্জাক।

রাজশাহীতে প্রথম স্তরের আরেক ম্যাচে বরিশালের দেয়া ২৮৪ রানের টার্গেটে ১৮২/২ সংগ্রহ নিয়ে তৃতীয় দিন শেষ করে স্বাগতিক রাজশাহী বিভাগ। ম্যাচে নিজের দ্বিতীয় ফিফটিতে জুনায়েদ সিদ্দিক ৬৫ ও অধিনায়ক জহুরুল ইসলাম ২৫ রানে অপরাজিত থাকেন। দুই ওপেনার মিজানুর রহমান ৩০ ও সাব্বির হোসেন ৪৯ রান করেন। এর আগে ঘুরে দাঁড়ানোর নৈপুণ্য দেখায় বরিশাল। প্রথম ইনিংসে ৯৭ রানে অলআউট হওয়ার পর মনিরের স্পিন ঘূর্ণিতে রাজশাহীকে ১৬০ রানে আটকে দেয় তারা। দ্বিতীয় ইনিংসে ২৪৬/৬ সংগ্রহ নিয়ে গতকাল আরো একশ’ রান যোগ করে বরিশাল। আল আমিনের (৯৭) পথ ধরে অর্ধশতক করেন শামসুল ইসলাম (৫৬)। রাজশাহীর হয়ে ফরহাদ রেজা নেন চার উইকেট। প্রথম ইনিংসের পাঁচ উইকেটশিকারি পেসার মোহর শেখ পান তিন উইকেট।

সংবাদ শিরোনাম