LOGo  


২৪ ঘন্টা আপনার পাশে, আপনার সাথে ডেইলি নারায়ণগঞ্জ ২৪ ডটকম

dailynarayanganj24@gmail.com

 

 

বেতন বৃদ্ধির দাবিতে শ্রমিকদের সড়ক অবরোধ, বিক্ষোভ

ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকমঃ সিদ্ধিরগঞ্জে ওয়েষ্ট নীট ওয়্যার লিঃ ও

পিএম নীট টেক্সটাইল নামে দুটি কারখানার শ্রমিকরা মজুরী বৃদ্ধি ও বেতন বৈষম্য নিরসনের দাবিতে বিক্ষোভ প্রর্দশন ও সড়ক অবরোধ করেছে। খবর পেয়ে থানা ও শিল্পাঞ্চল পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে শ্রমিকদের বুঝিয়ে-শুনিয়ে রাস্তা থেকে সরিয়ে নিলে যানবাহন চলাচল শুরুহয়। পরে মালিক পক্ষের সঙ্গে আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে শ্রমিকদের বিষয়টি সমস্যার সমাধানের আশ্বস্ত করা হলে পরিস্থিতি শান্ত হয়। অবশ্য শিল্পাঞ্চল পুলিশের দাবি শ্রমিকরা ৫-৭ মিনিটের মতো রাস্তায় অবস্থান করেছিল। পরে পুলিশ গিয়ে তাদেরকে রাস্তা থেকে সরিয়ে দেয়। বুধবার বেলা ১১টা থেকে বেলা ১২টা পর্যন্ত আদমজীর সুমিলপাড়ার ওয়েষ্ট নীট ওয়্যার এবং বেলা ১২টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত গোদনাইলের পিএম নীট টেক্সটাইল কারখানা শ্রমিকরা বিক্ষোভ করে।
পুলিশ ও শ্রমিকরা জানায়, বুধবার বেলা ১১টায় সিদ্ধিরগঞ্জের সুমিলপাড়া এলাকার ওয়েষ্ট নীট ওয়্যার কারখানার শ্রমিকরা মজুরী বৃদ্ধি ও বৈতন বৈষম্য নিরসনের দাবিতে কাজ বন্ধ করে দিয়ে বিক্ষোভ করতে থাকে। এ সময় কিছু শ্রমিকরা নারায়ণণগঞ্জ-আদমজী-ডেমরা সড়কে এসে অবরোধ করে। খবর পেয়ে থানা ও শিল্পাঞ্চল পুলিশ গিয়ে তাদেরকে রাস্তা থেকে সরিয়ে দেয়। পরে শ্রমিকরা কারখানার ভেতরে অবস্থান করে বিক্ষোভ করতে থাকে। পরে পুলিশ মালিক পক্ষের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করে শ্রমিকদের দাবি দাওয়া মেনে নেয়ার আশ্বাস দিলে পরিস্থিতি শান্ত হয। অপরদিকে সিদ্ধিরগঞ্জের চৌধুরিবাড়ি এলাকায় পিএম নীট ওয়্যার গার্মেন্টসের শ্রমিকরা বেলা বারোটায় কাজ বন্ধ করে দিয়ে কারখানার সামনের রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ করতে থাকে। এ সময় থানা ও শিল্পাঞ্চল পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে শ্রমিকদের সাথে কথা বলে রাস্তা থেকে সরিয়ে কারখানার ভেতরে নিয়ে যায়। পরে মালিকপক্ষের সাথে কথা বলে শ্রমিকদেরকে দাবি-দাওয়া মেনে নেয়ার আশ্বস্ত করা হলে শ্রমিকরা কাজে যোগ দেয়। দু’টি কারখানার সামনে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়।
শিল্পাঞ্চল পুলিশ-৪, নারায়ণগঞ্জ জোনের পরিচালক পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম জানান, শ্রমিকদের মজুরী বৃদ্ধি ও বেতন বৈষম্য নিরসনের দাবিতে দু’টি কারখানার শ্রমিকরা রাস্তায় নেমে এসেছিল। খবর পেয়ে পুলিশ কারখানায় গিয়ে ৫-৭ মিনিটের মধ্যে তাদেরকে রাস্তা থেকে সরিয়ে দেয়। পরে তাদেরকে কারখানার ভেতরে নিয়ে মালিক পক্ষের সঙ্গে আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে সমস্যার সমাধান করা হয়েছে।

সংবাদ শিরোনাম