LOGo  


২৪ ঘন্টা আপনার পাশে, আপনার সাথে ডেইলি নারায়ণগঞ্জ ২৪ ডটকম

dailynarayanganj24@gmail.com

 

 

সিদ্ধিরগঞ্জে কাউন্সিলর মতিকে কুপিয়ে যখম, আ’লীগের নির্বাচনী ক্যাম্পে আাগুন

ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকমঃ নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে জমি সংক্রান্ত জের ধরে নাসিক-৬ নং ওর্য়াড কাউন্সিলর ও থানা যুবলীগ সভাপতি মতিউর রহমান মতিকে কুপিয়ে যখম করেছে প্রতিপক্ষের লোকজন।

জমি সংক্রান্ত বিষয়ে আওয়ামীলীগের দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় কাউন্সিলর মতি সহ দুই পক্ষের ৫ জন আহত হয়েছেন। মতির উপর হামলার খবর ছড়িয়ে পড়লে শত শত নারী পুরুষ-ঘটনাস্থলে ছুটে আসে। উত্তেজিত নেতাকর্মীরা মতির উপর হামলাকীদের বাড়ি-ঘরে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করে।  বৃহস্পতিবার (৩ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে ১১টায় আদমজী নতুন বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, কাউন্সিলর মতিউর রহমানের লোক হিসেবে পরিচিত রাজ্জাকের সঙ্গে সাবেক কাউন্সিলর সিরাজ মন্ডলের লোক ছোট ইসমাইলের মধ্যে পৌনে এক শতাংশ জমি নিয়ে ঝামেলা চলে আসছিল। এ নিয়ে একাধিকবার শালিস বসে। কিন্তু কোন সমাধান হয়নি। এক পর্যায়ে সমাধান না হওয়া পর্যন্ত ওই জমিতে কাউকে কাজ করতে নিষেধ করেন কাউন্সিলর মতি। বৃহস্পতিবার সকালে ছোট ইসমাইল ওই জমিতে ঘর উঠানো শুরু করে।  রাজ্জাক বিষয়টি মতিকে জানায়। খবর পেয়ে মতি ঘটনাস্থলে গিয়ে ঘর উঠাতে নিষেধ করে কথাকাটাকাটির এক পর্যায়ে ইসমাইল, হান্নান শেখ, মজিবর গংরা মতির উপর অতর্কিত হামলা চালায়। এতে মতির মাথা ফেটে যায় এবং মুখে মারাত্মকভাবে জখম হয়। দ্রুত তাকে উদ্ধার করে নিরাপদ স্থানে নিয়ে যাওয়া হয়।
এদিকে মুহুর্তের মধ্যে হামলার ঘটনা ছড়িয়ে পড়লে চারদিকে থেকে মতির সমর্থক ও এলাকবাসী ঘটনাস্থলে দিকে আসার খবর পেয়ে ইসমাইল, হান্নান শেখ, মজিবর, আলমগীর গংরা পালিয়ে যায়।  পরে উত্তেজিত লোকজন মতির উপর হামলাকারীদের বাড়ি-ঘরে হামলা ও ভাংচুর চালায়। এসময় পুরো এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। আতঙ্কে বন্ধ হয়ে যায় এলাকার দোকান-পাট।  এদিকে এ ঘটনার জের ধরে বিকেলে একদল লোক যুবলীগ ও জেলা বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের কার্যালয়ে আগুন ধরিয়ে দেয়। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের একটি ঘটনাস্থলে পৌছে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত  কর্মকর্তা (ওসি) মীর শাহিন শাহ পারভেজ ও ইন্সপেক্টর (তদন্ত) নজরুল ইসলামের নেতৃত্বে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন। এবং ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়।

পুলিশ সুপারের মিডিয়া উইং ইন্সপেক্টর সাজ্জাদ রোমন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, পরিস্থিতি এখন স্বাভাবিক রয়েছে। ঘটান্থলে পুলিশ রয়েছে।

এদিকে সাবেক কাউন্সিলর সিরাজুল ইসলাম মন্ডল জানান, একটি জমি সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে কাউন্সিলর মতিউর রহমান মতির উপর হামলার কথা শুনেছি। আমি একাদশ জাতীয় নির্বাচনের পরের দিন থেকে শারীরিক ভাবে অসুস্থ্য।

কিন্তু হামলাকারীরা আমার দলের কেউ না। হান্নান নামে আমার এক কর্মী আছে কিন্তু এ হান্নান সেই হান্নান না। আদমজী নতুন বাজার  এলাকার আবুল হাসেম এর ছেলে হান্নানের সাথে কাউন্সিলরের ঘটনা ঘটেছে। আমি এর সুস্থ্য তদন্ত করে দোষীদের কঠোর শাস্তির দাবী জানাচ্ছি।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ওসি মীর শাহীন শাহ পারভেজ জানান, পৌনে একশো শতাংশ জমি নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে ঝামেলা ছিলো।  এর এক পক্ষ বর্তমান কাউন্সিলর মতিউর রহমানের লোক রাজ্জাক এবং অপর পক্ষ সাবেক কাউন্সিলর সিরাজ মন্ডলের লোক হান্নান শেখ।  ঘটনার সময় মোটরসাইকেল যোগে ঘটনাস্থলে আসেন কাউন্সিলর। এসময় তার উপর হামলা চালানো হয়।

সংবাদ শিরোনাম