LOGo  


২৪ ঘন্টা আপনার পাশে, আপনার সাথে ডেইলি নারায়ণগঞ্জ ২৪ ডটকম

dailynarayanganj24@gmail.com

 

 

শীতলক্ষ্যায় ২দিন পর শ্রমিকের লাশ উদ্ধার

ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকমঃ নারায়ণগঞ্জ মহানগরের সিদ্ধিরগঞ্জে

তেলের জাহাজের এক শ্রমিককে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। শনিবার রাতে সিদ্ধিরগঞ্জের আদমজী ইপিজেড এলাকায় শীতলক্ষ্যা নদীতে ঘটনাটি ঘটেছে। হত্যাকান্ডের দুদিন পর পুলিশ সোমবার দুপুরে বন্দর থানা এলকার আমিরাবাদ ডকইয়ার্ড এলাকা থেকে হতভাগ্য ওই শ্রমিকের লাশটি উদ্ধার করে। নিহত ওই শ্রমিকের নাম জাহিদ (৩০)। সে পিরোজপুর জেলার চল্লিশা গ্রামের আমির আলির ছেলে। এদিকে ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী জাহিদের সহকর্মী মামুন ও সোহেলের বরাত দিয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার পরিদর্শক(অপারেশন) আজিজুল হক  জানায়, জাহিদসহ তারা কয়েকজন এসও এলাকার তেলের ব্যবসায়ি ইকবালের মালিকানাধিন এস.এস. ইশান-২ নামক একটি লাইটার জাহাজে কাজ করতো। শনিবার রাতে জাহিদের বন্ধু মাইনুদ্দিন ওই জাহাজে আসে তাদের সাথে দেখা করার জন্য। এসময় মাইনুদ্দিন জাহিদ, মামুন এবং সোহেলকে নিয়ে চটপটি খাওয়ার কথা বলে নৌকা নিয়ে আদমজী বাজারের উদ্দেশ্যে রওনা হয়। এসময় মাইনুদ্দিনের সাথে অপরিচিত আরো দু’তিন জন লোক ছিলো। কিন্তু নৌকা ঘাটে না ভিড়িয়ে আদমজী ইপিজেডের দিকে নিয়ে যেতে থাকে মাইনুদ্দিন। এসময় ইপিজেড এলাকায় পৌছালে হঠাৎই মাইনুদ্দিন বড় এক ছুরি বের করে জাহিদের মাথায় আঘাত করতে থাকে। পরে ছোট একটি চাকু বের করে জাহিদের চেহারায় অসংখ্য আঘাত করতে থাকে মাইনুদ্দিন। এ দৃশ্য দেখে ভয়ে সোহেল নদীতে লাফ দেয়। এসময় মামুন লাফ দিতে গেলে মাইনুদ্দিনের সাথে থাকা লোকজন তাকে ধরে ফেলে। মাইনুদ্দিন মামুনকেও মারতে উদ্যোক্ত হলে সে তার কাছে দুহাত জোর করে প্রাণ ভিক্ষা চায়। এসময় মাইনুদ্দিন মামুনকে বলে এখনি তর বাড়ি থেকে বিকাশে টাকা নিয়ে এসে চলে যাবি। আর এ ঘটনা কাউকে বললে তকেও মেরে ফেলবো। তখন ভয়ে সে তার কথায় রাজি হয়ে কোন রকমে সেখান থেকে চলে আসে। পরে সোহেল ও মামুন থানায় এসে বিষয়টি পুলিশকে অবহিত করে। এদিকে মাইনুদ্দিনের বড় ভাই রোকন উদ্দিনও একই জাহাজের শ্রমিক হিসেবে তাদের সাথে কর্মরত আছে। ঘটনার সময় রোকন জাহাজে ছিলো বলে জানায় পুলিশ। রবিবার দুপুরে জাহিদের লাশ উদ্ধারের পর বন্দর থানা পুলিশের মাধ্যমে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে পাঠিয়েছে পুলিশ। ঘাতক মাইনুদ্দিন রাজশাহী জেলার শাহ মখদুম থানার হরিসাড়ডান পাড়া এলাকার আবুল কাশেমের ছেলে। এঘটনায় সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে জানায় পুলিশ। পাশাপাশি আসামীকে আইনের আওতায় আনার জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

সংবাদ শিরোনাম