LOGo  


২৪ ঘন্টা আপনার পাশে, আপনার সাথে ডেইলি নারায়ণগঞ্জ ২৪ ডটকম

dailynarayanganj24@gmail.com

 

 
Previous ◁ | ▷ Next
 
2018-11-15-14-23-32ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকম: নারায়ণগঞ্জ-৪ (ফতুল্লা-সিদ্ধিরগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য একেএম শামীম ওসমান বলেছেন,  ফতুল্লা-সিদ্ধিরগঞ্জ আমার হৃদপিন্ড। আমি আমার হৃদপিন্ডকে সাজাতে চাই। ভালো কলেজ, স্কুল, বিশ্ববিদ্যালয়, চিকিৎসা চাইলে সবজায়গা থেকে নারায়ণগঞ্জে আসবে।বৃহস্পতিবার (১৫ নভেম্বর) বিকেলে...
     
ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকম: নারায়ণগঞ্জে ৪ দিন ব্যাপী আয়কর মেলার দ্বিতীয় দিনেই কর আদায় হয়েছে ...
 
ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকম:নাশকতার অভিযোগে দায়েরকৃত দশটি ‘গায়েবী’ মামলায় ১‘শ ৬৮ নেতাকর্মীসহ উচ্চ আদালত থেকে...
     
ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকম: নারায়ণগঞ্জ ২-আসনের এমপি আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম বলেছেন জননেত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ...
 
ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকম: মাষ্টার্স শেষ বর্ষের পরিক্ষার্থীদের সাথে অমানবিক আচরণ ও অনৈতিকভাবে খাতা আটকে...
 
নগর-মহানগর
 
     
 
ফতুল্লা
 
     
 
বন্দর
 
     
 
সিদ্ধিরগঞ্জ
 
     
 
সোনারগাও
 
     
 
রূপগঞ্জ
 
     
 
আড়াইহাজার
 
     
 
 
 
 
সর্বশেষ ২৪ শিরোনাম
 
 
বিশেষ সংবাদ
 
বিজ্ঞাপন
 
সাক্ষাতকার
 
বিজ্ঞাপন
 
খেলা
 
বিজ্ঞাপন
 
বিনোদন
 
বিজ্ঞাপন
দূভোর্গ
 
আলোচিত সংবাদ
 
 
 
 
 
 

থমকে আছে না’গঞ্জের রাজনীতি; চলছে মনোনয়ন প্রত্যাশিদের লবিং

ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকমঃ থমকে আছে নারায়ণগঞ্জের রাজনীতি তবে

সেটা শুধুই সাংগঠনিক কর্মকান্ডের ক্ষেত্রে। আগামী জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও জাতীয় পার্টির মনোনয়ন প্রত্যাশি নেতারা মরিয়া হয়ে পড়েছে নিজের টিকেটকে ভাগিয়ে আনতে। এ নিয়ে যে যার মত করে চালিয়ে যাচ্ছে লবিং, সেই সাথে নানা কুটকৌশলতো আছেই। এই সকল মনোনয়ণ প্রত্যাশিদের এখন একটাই চাওয়া দলের টিকেট। আর সেটাকে আনতে প্রয়োজনে অনেকেই নিজ দলের সিনিয়রদের বিরুদ্ধে সমালোচনা করতে পিছ পা হচ্ছে না। কেউ বা প্রকাশ্যে আবার কেউ গোপনে অনেকেই মিডিয়ার উপর ভর করে নানা কৌশলে পরিষ্কার করার চেষ্টা করছেন নিজের রাস্তা। তবে সেটা দেশ ও দলের জন্য কতটুকু ক্ষতির কারণ তা দেখার সময় তাদের হাতে নেই।

এ বিষয় রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলেন, আমাদের মতে নির্বাচন মানেই তিন ধরনের মনোনয়ন প্রত্যাশি প্রার্থীদের দেখা মিলে। এরা হলেন ব্যবসায়ী, সুবিধাবাদী বা সুযোগ সন্ধানী অপরটি হলো জনসেবা। অনেক নেতাই আছেন যারা নির্বাচন আসলেই কচ্ছপের ন্যায় মাথা চাড়া দিয়ে উঠে নিজেকে প্রকাশ করার জন্য। সাধারণত এরা দু’ই ধরনের মন-মানষিকতা নিয়ে নির্বাচনে ঝুকে পড়েন। একটি হলো মনোনয়ন ক্রয় করে সঠিক সময় মোটা অংকের অর্থের বিনিময় লাভবান হয়ে নির্বাচন থেকে সড়ে দাড়ানো। অপরটি হলো প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থীর কাছ থেকে অদৃশ্য ক্ষমতা নানা বিষয় বণ্টন করা। আর যারা সুবিধাবাদী সুযোগ সন্ধানী তারা বেশীর ভাগ সময়ই নানা ভাবে নিজেকে বড় জাহির করার চেষ্টায় লিপ্ত থাকেন। এই সকল মনোনয়ন প্রত্যাশিরা নিজ দলের নেতাদের বিরুদ্ধে কথা বলতে বেশী স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন। তার বক্তব্যে দলের কতটা ক্ষতি হচ্ছে সেটার বিষয় কোন তোয়াক্কা না করেই চালিয়ে যান তার প্রপাকান্ড। এরা নিজের স্বার্থের জন্য প্রয়োজনে নির্বাচনের সময় দলের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে গিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নিজেকে দাড় করায়। যতক্ষন পর্যন্ত নিজের স্বার্থ হাসিল না হবে ততক্ষন পর্যন্ত সে তার কাজ চালিয়ে যাবে। এ কথায় বলা চলে দল ও দেশের জন্য তারা বিষফোরার সামিল।
অপরদিকে যারা সব সময় জনসেবা করার জন্য নির্বাচনে মনোনয়ন প্রত্যাশি হন তারা কখনই দলের নেতাদের বিরুদ্ধে কথা বলে না। নির্বাচন মানেই নিজের স্বার্থ হাসিল করা এই ধরনের কোন মনোভাব তাদের ভিতরে দেখা যায় না। তারা কখনই নিজেকে বড় বলে জাহির করার চেষ্টা করেন না। আর এই সকল নেতাদের সংক্ষ্যা দিন দিন কমে যাচ্ছে অপ-রাজনীতির কারনেই। তবে এসব কিছুই পরিস্কার হবে আগামী জাতীয় নির্বাচনের পূর্ব মূর্হুতে জনতার সামনে।