LOGo  


২৪ ঘন্টা আপনার পাশে, আপনার সাথে ডেইলি নারায়ণগঞ্জ ২৪ ডটকম

dailynarayanganj24@gmail.com

 

 
Previous ◁ | ▷ Next
 
2018-07-15-17-25-58ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকম: রাশিয়া বিশ্বকাপের ফাইনালে ক্রোয়েশিয়াকে ৪-২ গোলে হারিয়ে ফের চ্যাম্পিয়ন হলো ফরাসিরা। আবারো সোনালী ট্রফিতে চুমু আঁকল তারা। ১৯৯৮ সালে প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপ জেতেছিল ফ্রান্স। এরপর তা অধরাই ছিল। অবশ্য হেরে গেলেও সাধুবাদ পাবে ক্রোয়েশিয়া। গোটা টুর্নামেন্টজুড়েই নান্দনিক...
     
ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকম: আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কমিটি’র ঢাকা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধূরী...
 
ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকম: সোনারগাঁ থানাধীন বৈদ্যের বাজার ইউনিয়নের চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী সানাউল্লাহ হত্যা মামলায়...
     
ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকম: আবারো ঢাকা রেঞ্জের শ্রেষ্ঠ পুলিশ সুপার নির্বাচিত হলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ...
 
ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকম: এমপি হিসেবে সর্বপ্রথম গরীবের বন্ধু উপাধি পেলেন জাতীয় পার্টির সিনিয়র যুগ্ম...
 
নগর-মহানগর
 
     
 
ফতুল্লা
 
     
 
বন্দর
 
     
 
সিদ্ধিরগঞ্জ
 
     
 
সোনারগাও
 
     
 
রূপগঞ্জ
 
     
 
আড়াইহাজার
 
     
 
 
 
 
সর্বশেষ ২৪ শিরোনাম
 
 
বিশেষ সংবাদ
 
বিজ্ঞাপন
 
সাক্ষাতকার
 
বিজ্ঞাপন
 
খেলা
 
বিজ্ঞাপন
 
বিনোদন
 
বিজ্ঞাপন
দূভোর্গ
 
আলোচিত সংবাদ
 
 
 
 
 
 

সিদ্ধিরগঞ্জে মূল সড়কের উপরে অবৈধভাবে চলছে ইটা-বালুর ব্যবসা

ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকম: নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে মূল সড়কের উপরে অবৈধভাবে চলছে ইটা-বালুর

ব্যবসা। এতে করে ধুলাবালি উড়ে যেমন পরিবেশ দূষণ করছে অন্যদিকে সড়কে দূর্ঘটনার আশংকাও রয়েছে। গণপরিবহণসহ অন্যান্য পরিবহণ চলাচলে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। এ অবস্থা নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ৮নং ওয়ার্ডের পাঠানটুলি এলাকার। স্থানীয় বাসিন্দা ও পথচারীদের অভিযোগ, কতিপয় ব্যবসায়ীরা রাস্তা দখল করে দীর্ঘ দিন যাবৎ অবৈধভাবে এই ইটা-বালুর ব্যবসা করে আসছে। রাস্তার পাশে খোলাভাবে ইটা-বালু রাখায় সারা দিনই সড়কে উড়ছে ধুলাবালি। তা বাতাসে উড়ে আশপাশের বাসাবাড়িতে ঢুকছে। সরেজমিনে সিদ্ধিরগঞ্জের পাঠানটুলি এলাকা ঘুরে দেখা গেছে রাস্তার উপর ইটা-বালি রাখার কারণে মূল রাস্তাটির অনেকাংশই দখল হয়ে থাকছে। ফলে গণপরিবহণ চলাচলে বিঘেœর সৃষ্টি হচ্ছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এই এলাকার কয়েজন বাসিন্দা ও স্থানিয় দোকানদাররা জানায় দীর্ঘদিন ধরে রাস্তার উপর এভাবে মালামাল রেখে ব্যাবসা করার কারণে রাস্তার অনেক খানি দখল হয়ে থাকছে। এতে করে বিভন্ন সময় বিভিন্ন রকম দুর্ঘটনার ঘটনা ঘটছে। পাশাপাশি তীব্র যানজটেরও সৃষ্টি হচ্ছে। এবিষয়ে আমরা প্রশাসন ও সিটি কর্পোরেশনের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। এ বিষয়ে ৮নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর রুহুল আমিন মোল্লা জানান রাস্তার উপর মালামাল রেখে ব্যাবসা করার এখতিয়ার কারো নাই। তারা অবৈধভাবে এই কাজগুলো করছে। আমরা বেশ কয়েকবার তাদের রাস্তা থেকে মালামাল সরিয়ে নেওয়ার জন্য বলেছি। কিন্তু তারা শোনেনি। বিষয়টি সিটি কর্পোরেশনকে জানানো হয়েছে। পাশাপাশি স্থানীয় প্রশাসণের ও এ দিকে নজর দেওয়া উচিত। তারা যদি যথাযথ পদক্ষেপ নেয় তাহলে আর এই সমস্যা থাকবেনা আমি মনে করি। এদিকে সিটি কর্পোরেশনের পরিচ্ছন কর্মকর্তা আলমগীর হিরনের কাছে মূল সড়কের পাশে খোলাভাবে এরকম ইটা-বালুর ব্যবসা করার কোন বৈধতা আছে কিনা জানতে চাওয়া হলে তিনি জানান, সিটি কর্পোরেশনের অভ্যন্তরে রাস্তার উপরে যদি কোন বাসা বাড়ি নির্মাণের মালামাল রাখতে হয় সেক্ষেত্রেও অস্থায়ী ভিত্তিতে অনুমতি নিতে হয়। কিন্তু দিনের পর দিন মূল সড়কের উপর এভাবে মালামাল রেখে ব্যবসা করার অনুমতি নেই। যারা করছে তারা সম্পূর্ণ অবৈধভাবে করছে। বিষয়টি আমাদের নজরে এসেছে। আমরা এ বিষয়ে দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণ করবো। দীর্ঘদিন যাবৎ অবৈধভাবে যারা ব্যাবসা করে আসছে তাদের বিরুদ্ধে এতোদিন কেনো কোন পদক্ষেপ নেননি আপনারা? এ প্রশ্ন করা হলে কোন সদুউত্তর দিতে পারেন নি এই কর্মকর্তা। এ বিষয়ে নারায়ণগঞ্জের অতিঃ পুলিশ সুপার (ক সার্কেল) শরফুদ্দিন জানান, বিষয়টি আমাদের নজরেও এসেছে। খুব শীঘ্রই এ বিষয়ে আমরা ব্যবস্থা গ্রহণ করবো। এদিকে পাঠানটুলি এলাকার বিসমিল্লা ট্রেডার্সের সাইডবোর্ড লাগানো একটি স্থানে গিয়ে দেখা যায় সেখানে কয়েকজন শ্রমিক কাজ করছে। তাদের কাছে ওই দোকানের মালিকের বিষয়ে জানতে চাইলে বলে পাশেই তাদের আরেকটি দোকান রয়েছে সেখানে মালিক মিলনকে পাওয়া যাবে। পরে দোকানে এসে মালিকের জন্য অপেক্ষা করে তাকে পাওয়া যায় নাই। দোকানের সাইনবোর্ড থেকে তার মোবাইল নাম্বার নিয়ে যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন ধরেন নি। একইভাবে পাশের মেসার্স আমানত শাহ এন্টারপ্রাইজ নামের দোকানটিও রাস্তার উপরে ইটা,বালি, সুরকি রেখে দিনের পর দিন প্রশাসনের চোখের সামনে দিয়ে ব্যাবসা করে আসছে। এই দোকানের মালিক রফিকুল ইসলামের সাথেও যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তাকে দোকানে এবং ফোনে পাওয়া যায়নি।